Bookmaker Bet365.com Bonus The best odds.

Full premium theme for CMS

নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনা: তথ্য-উপাত্ত-ভাষ্য

Written by সাইফ সুমন.

Блогът Web EKM Blog очаквайте скоро..

স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরে এসে মনে হলো আমাদের নিয়মিত শহুরে-মঞ্চচর্চারও তো পঞ্চাশ বছর হতে চলেছে। সেক্ষেত্রে আমাদের মঞ্চনাট্যচর্চার ৫০টি প্রযোজনা বাছাই করা যায় কিনা, যেগুলোকে ‘উল্লেখযোগ্য প্রযোজনা’ হিসেবে ধরে নেয়া যায়। এ লক্ষ্যে আমরা শতাধিক গ্রহণযোগ্য নাট্যজন-নাট্যভাবুক-দর্শককে অনুরোধ করেছিলাম তাদের ভালোলাগা প্রযোজনার নাম দেয়ার জন্য। সবশেষে ৭৮ জন বন্ধু আমাদের ডাকে সাড়া দিয়েছেন। তারা মোট ২৩৯ প্রযোজনার নাম উল্লেখ করেছেন (২৩৯টি প্রযোজনার নাম লেখার সবশেষে দেয়া হলো)। তাদের নির্বাচনেই আমরা তৈরি করেছি ‘স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর: নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনা’- তালিকাটি। ‘থিয়েটারওয়ালা’র বর্তমান-সংখ্যায় নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার একটি করে নাট্যসমালোচনা বা রিভিউ পুনঃপ্রকাশ করা হয়েছে। এই নাট্যসমালোচনা প্রযোজনাগুলো মঞ্চে আসার সময়-কাল ধরে একটির পর একটি সাজানো হয়েছে। সুতরাং এই ৫০টি প্রযোজনার কোনোটিই প্রথম-দ্বিতীয়-তৃতীয়...পঞ্চাশতম ইত্যাদির ক্রম প্রকাশ করছে না।

একটি প্রযোজনার ব্যাপারে, সাধারণত, সেই প্রযোজনাটি কোন নাট্যদলের, এর রচয়িতা ও নির্দেশক কে, কারা অভিনয় করেছেন- এসব নিয়েই আলোচনা হয়। কিন্তু আমরা জানি প্রযোজনায় আরো কয়েকজন শিল্পী জড়িত থাকেন, যাদেরকে পরিকল্পক বা ডিজাইনার বলা হয়। আমরা চেয়েছি তারাও যেন স্বীকৃতি পান। আর তাই প্রত্যেকটি প্রযোজনার ক্ষেত্রে তার রচয়িতা (ক্ষেত্রবিশেষে অনুবাদক বা রূপান্তরকারীসহ), নির্দেশক, মঞ্চ-আলোক-আবহসংগীতপরিকল্পক, রূপসজ্জাকর ও পোস্টার ডিজাইনারের নামও উল্লেখ করেছি। তবে অভিনেতৃ ও নেপথ্যকর্মীদের নাম (যেহেতু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাদের বিকল্পশিল্পীও তৈরি হয়) সংযোজন করা সম্ভব হয় নি। আমরা নির্বাচিত প্রযোজনার সাথে সংযুক্ত থাকার জন্য তাদেরকেও জানাই অভিনন্দন।

কিছু কিছু দল ও শিল্পীকে আলাদাভাবে সাধুবাদ জানাতে চাই। কারণ, তারা একাধিক প্রযোজনায় তাদের শিল্পীসত্তার উপস্থিতি জানিয়েছেন। সে বিবেচনায় নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার অন্তত ৩টি করে প্রযোজনায় যারা সফল শৈল্পীক-অবদান রেখেছেন, প্রয়াতদের স্মরণ কিংবা বর্তমান শিল্পীদের ভবিষ্যতে কাজের অনুপ্রেরণার লক্ষ্যে তাদের নাম বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই।

মঞ্চপরিকল্পনা

ফয়েজ জহির
আমাদের মঞ্চের এক উজ্জ্বল নাম। তিনি ‘আরণ্যক নাট্যদলে’র সদস্য হলেও ঢাকা এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন দলেও নির্দেশনা ও ডিজাইনের কাজ করে থাকেন। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনায় তিনি সর্বোচ্চ ৬টি নাটকের মঞ্চপরিকল্পনা করেছেন। নাটকগুলো হলো- নানকার পালা, জয়জয়ন্তী,  ময়ূর সিংহাসন, সঙক্রান্তি, রাঢ়াঙ, একশ’ বস্তা চাল।

সৈয়দ জামিল আহমেদ
নির্দেশনা ও ডিজাইনে অসাধারণ অনেক কাজ করেছেন। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তিনি ৫টি প্রযোজনার মঞ্চপরিকল্পক। নাটকগুলো হলো- কিত্তনখোলা, কেরামতমঙ্গল, চাকা, বিষাদ সিন্ধু, রিজওয়ান।

শেখ মনসুরউদ্দিন আহমেদ
নিজ দল ‘নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ে’র বাইরেও তিনি নিয়মিত মঞ্চপরিকল্পনার কাজ করে থাকেন। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনাগুলোর মধ্যে কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নূরলদীনের সারাজীবন, গ্যালিলিও, দর্পণে শরৎশশী এই ৪টি নাটকের তিনি মঞ্চপরিকল্পক।

কামালউদ্দিন কবির
নির্দেশনার পাশাপাশি ডিজাইনার হিসেবেও ব্যাপক পরিচিতি আছে তার। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার গোলাপজান, নিত্যপুরাণ, বিনোদিনী, অহরকণ্ডল-এই ৪টি নাটকের তিনি মঞ্চপরিকল্পনা করেছেন।

কামরুজ্জামান রুনু
বেশ কবছর ধরেই মঞ্চের সাথে তেমন একটা যোগাযোগ নেই। তিনি মূলত মঞ্চ ও আলোকপরিকল্পনায় সিদ্ধহস্ত। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার শেষ সংলাপ, লোক সমান লোক, এখনও ক্রীতদাস-এই তিন নাটকের মঞ্চপরিকল্পক তিনি।

মোঃ সাইফুল ইসলাম
নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সার্কাস সার্কাস, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, রাজা এবং অন্যান্য... এই তিন নাটকের মঞ্চপরিকল্পক মোঃ সাইফুল ইসলাম।


আলোকপরিকল্পনা

ঠাণ্ডু রায়হান
নামেই কেবল ‘আরণ্যক নাট্যদল’-সদস্য, কিন্তু আলো ছড়াচ্ছেন পুরো দেশে। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সর্বোচ্চ ৮টির আলোকপরিকল্পকের নাম ঠাণ্ডু রায়হান। প্রযোজনাগুলো হলো- নানকার পালা, কোর্ট মার্শাল, গোলাপজান, জয়জয়ন্তী, সক্রেটিসের জবানবন্দী, ময়ূর সিংহাসন, সঙক্রান্তি, একশ’ বস্তা চাল।

নাসিরুল হক খোকন
আরেক গুণী আলোর যাদুকর। আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার ৫টির তিনি আলোকপরিকল্পক- দর্পণে শরৎশশী, অহরকণ্ডল, ধাবমান, মানগুলা, নিত্যপুরাণ।

সৈয়দ লুৎফর রহমান
আমাদের মঞ্চনাট্যচর্চার গোড়া থেকেই তিনি আলোকপরিকল্পনায় অবদান রেখে গেছেন। ‘নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ে’র প্রযোজনাগুলোই মূলত তার বিচরণক্ষেত্র। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার ৪টির তিনি আলোকপরিকল্পক- দেওয়ান গাজীর কিসসা, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নূরলদীনের সারাজীবন, গ্যালিলিও।

সৈয়দ জামিল আহমেদ
নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার ৪টির আলোকপরিকল্পক সৈয়দ জামিল আহমেদ। প্রযোজনাগুলো হলো- কেরামতমঙ্গল, চাকা, বিষাদ সিন্ধু, রিজওয়ান।

কামরুজ্জামান রুনু
পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, এখনও ক্রীতদাস, শেষ সংলাপ, লোক সমান লোক-আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনাগুলোর মধ্যে এই ৪টির তিনি আলোকপরিকল্পক।

মোঃ সাইফুল ইসলাম
নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সার্কাস সার্কাস, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, রাজা এবং অন্যান্য... এই তিন নাটকের আলোকপরিকল্পক তিনি।

পোশাকপরিকল্পনা

শিমূল ইউসুফ
‘ঢাকা থিয়েটারে’র অধিকাংশ নাটকের পোশাকপরিকল্পনা করে থাকেন শিমূল ইউসুফ। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে সর্বোচ্চ ৫টির পোশাকপরিকল্পনা করেছেন তিনি- কেরামতমঙ্গল, বনপাংশুল, প্রাচ্য, বিনোদিনী, ধাবমান।

কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন
মূলত অভিনেতা ও নির্দেশক হলেও পোশাকপরিকল্পনায় তিনি সফলতার পরিচয় দিচ্ছেন নাট্যজীবনের শুরু থেকেই। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে সার্কাস সার্কাস, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রাজা এবং অন্যান্য... এই চার নাটকের পোশাকপরিকল্পনা করেছেন তিনি।

আবহসংগীতপরিকল্পনা

শিমূল ইউসুফ
নাটকে আবহসংগীত আর শিমূল ইউসুফ যেন একসূত্রে গাঁথা। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সর্বোচ্চ ৮টির আবহসংগীতপরিকল্পক এই গুণী মঞ্চকুসুম- কিত্তনখোলা, কেরামতমঙ্গল, হাতহদাই, বনপাংশুল, প্রাচ্য, বিনোদিনী, ধাবমান, চাকা।

কে বি আল আজাদ
দেওয়ান গাজীর কিসসা, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নূরলদীনের সারাজীবন, গ্যালিলিও, দর্পণে শরৎশশী- নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে এই ৫টির তিনি আবহসংগীতপরিকল্পক।

রূপসজ্জা

বঙ্গজীৎ দত্ত
এই নামটির সাথে আমাদের মঞ্চনাটকের রূপসজ্জার বিষয়টি যেন ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বেঁচে থাকলে আমাদের নাটককে নিশ্চয়ই আরো ঋদ্ধ করে যেতেন। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সর্বোচ্চ ৫টির তিনি রূপসজ্জাকর- ম্যাকবেথ, নানকার পালা, দেওয়ান গাজীর কিসসা, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নূরলদীনের সারাজীবন।

নূরুল হক
‘আরণ্যক নাট্যদল’-সদস্য অকাল প্রয়াত নূরুল হক রূপসজ্জায় আরেক উজ্জ্বল নাম। জয়জয়ন্তী, ময়ূর সিংহাসন, সঙক্রান্তি, রাঢ়াঙ- নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার এই ৪টির তিনি রূপসজ্জাকর।

শুভাশীষ দত্ত তন্ময়
বঙ্গজীৎ দত্তের ছেলে তন্ময় বাবার মতোই নিরন্তর করে যাচ্ছেন রূপসজ্জার কাজটি। নিত্যপুরাণ, একশ’ বস্তা চাল, জ্যোতিসংহিতা- নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার এই ৩ প্রযোজনার তিনি রূপসজ্জাকর।  

পোস্টার ডিজাইন

শাহীনুর রহমান
নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সব কটির পোস্টার করা হয় নি- ৪৩টি পোস্টারের সন্ধান আমরা পেয়েছি। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৪টির পোস্টার ডিজাইন করেছেন শিল্পী শাহীনুর রহমান। তিনি গোলাপজান, অহরকণ্ডল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস ও রিজওয়ান-এর পোস্টার ডিজাইনার।

আনওয়ার ফারুক
কিত্তনখোলা, বনপাংশুল, প্রাচ্য- এই  ৩টির পোস্টার ডিজাইন করেছেন আনওয়ার ফারুক।

আফজাল হোসেন
অভিনেতা হিসেবে তুমুল জনপ্রিয় হয়েও পোস্টার ডিজাইনেও রেখেছেন কৃতিত্বের ছাপ। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার ৩টির পোস্টার ডিজাইনার তিনি- কেরামতমঙ্গল, হাতহদাই, বিনোদিনী।

নির্দেশনা

নাসির উদ্দিন ইউসুফ
‘ঢাকা থিয়েটারে’র প্রযোজনা মানেই যেন নাসির উদ্দিন ইউসুফের নির্দেশনা। অনেক নাটকের সফল নির্দেশক তিনি। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সর্বোচ্চ ৬টির নির্দেশক তিনি। প্রযোজনাগুলো হলো- কিত্তনখোলা, কেরামতমঙ্গল, হাতহদাই, বনপাংশুল, প্রাচ্য ও বিনোদিনী।

আজাদ আবুল কালাম
মঞ্চজীবনের শুরুতে ছিলেন নেপথ্যকর্মী। তারপর তোতলানো-বাক্যসঞ্চালন অতিক্রম করে এলেন বিকল্প-অভিনেতা হিসেবে। তারপর অভিনেতা। এরপর নির্দেশনা ও নাটকরচনা। বহুদিন ধরেই নিজ-দল ‘প্রাচ্যনাট’ বাদেও বিভিন্ন দলে দিচ্ছেন নির্দেশনা। তার নির্দেশিত সার্কাস সার্কাস, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রাজা এবং অন্যান্য... এই ৪টি প্রযোজনা জায়াগা করে নিয়েছে নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায়।  

আবদুল্লাহ আল-মামুন
নাট্যকার-নির্দেশ-অভিনেতা কী ছিলেন না এই মহান শিল্পী! অনেকটা অকালেই চলে গেলেন। তবে রেখে গেছেন কাজের সাক্ষী। তার নির্দেশিত পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, কোকিলারা, এখনও ক্রীতদাস- এই ৩টি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আলী যাকের
যে মৃত্যুর মিছিল আমরা প্রত্যক্ষ করছি গত এক বছর, সেই মিছিলের পথ ধরে চলে গেছেন এই গুণী শিল্পী আলী যাকের। অভিনয়-অনুবাদ-রূপান্তর-নির্দেশনা- কত ভূমিকায় মঞ্চ দাপিয়েছেন এই প্রিয় মানুষটি! নূরলদীনের সারাজীবন, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, দর্পণে শরৎশশী তার নির্দেশিত এই ৩ প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনায় স্থান করে নিয়েছে।

মামুনুর রশীদ
আমাদের মঞ্চনাটকের রচনা-নির্দেশনা ও অভিনয়ে অনন্য স্বাক্ষর রেখে চলেছেন এই গুণী শিল্পী। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে জয়জয়ন্তী, সঙক্রান্তি, রাঢ়াঙ-এই ৩ নাটকের নির্দেশক তিনি।

সৈয়দ জামিল আহমেদ
ধীমান এই নাট্যজনের নির্দেশিত বিষাদ সিন্ধু, চাকা, রিজওয়ান- এই ৩ প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনায় স্থান করে নিয়েছে।

রচনা

সেলিম আল দীন
‘ঢাকা থিয়েটারে’র নাটক মানেই যেন এর রচয়িতা সেলিম আল দীন। আমরা অকালেই তাকে হারিয়েছি। এই ক্ষতি পূরণ হবার নয়। আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার সর্বোচ্চ ৭টির রচয়িতা তিনি। নাটকগুলো হলো- কিত্তনখোলা, কেরামতমঙ্গল, চাকা, হাতহদাই, বনপাংশুল, প্রাচ্য ও ধাবমান।

মামুনুর রশীদ
মঞ্চনাটকে প্রিয় এই নাট্যকর্মীর পদচারণা সবাইকেই মুগ্ধ করে, আস্থা দেয়। আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে জয়জয়ন্তী, সঙক্রান্তি, রাঢ়াঙ-এই ৩ নাটকের নাট্যকার তিনি।

সৈয়দ শামসুল হক
রচনা ও অনুবাদে সমান দক্ষ সব্যসাচী লেখক হুট করেই আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। তবে রেখে গেছেন তার কাজের স্বাক্ষর। নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, নূরলদীনের সারাজীবন, ম্যাকবেথ (অনুবাদ) তার রচনা।

বের্টল্ট ব্রেশ্ট
বিদেশি নাট্যকারদের মধ্যে ব্রেশ্টের নাটকই আমাদের মঞ্চে বেশি অভিনীত হয়েছে- এই সত্যটি পরিষ্কার হয়ে যায় যখন দেখি তার রচিত ৩টি নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনায় জায়গা করে নিয়েছে। অনুবাদ বা রূপান্তরিত এই তিন নাটক হলো- গ্যালিলিও, দেওয়ান গাজীর কিসসা ও লোক সমান লোক।

নাট্যদল

এবার আসি প্রযোজনার মূল-অভিভাবক ‘নাট্যদল’ বা ‘থিয়েটার গ্রুপ’ প্রসঙ্গে। আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার অন্তত ৩টি প্রযোজনা যেসব নাট্যদলের গর্ভে জন্ম নিয়েছে সেগুলো হলো:
 
ঢাকা থিয়েটার
দলটি নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার মধ্যে সর্বোচ্চ ৮টি প্রযোজনা মঞ্চে এনেছে। নাটকগুলো হলো- কিত্তনখোলা, কেরামতমঙ্গল, চাকা, হাতহদাই, বনপাংশুল, প্রাচ্য, বিনোদিনী ও ধাবমান।   

আরণ্যক নাট্যদল
স্বাধীনতার পর প্রথম মঞ্চে নাটক-আনা দলটির ৫টি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় ঠাঁই করে নিয়েছে। সেগুলো হলো- নানকার পালা, জয়জয়ন্তী, ময়ূর সিংহাসন, সঙক্রান্তি, রাঢ়াঙ।

নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়
বয়োজ্যেষ্ঠ এই নাট্যদলটিরও ৫ প্রযোজনা দেওয়ান গাজীর কিসসা, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নূরলদীনের সারাজীবন, গ্যালিলিও ও ম্যাকবেথ (যৌথ)- নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনায় জায়গা করে নিয়েছে।

থিয়েটার
পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, কোকিলারা, এখনও ক্রীতদাস ও ম্যাকবেথ (যৌথ)- দলটির এই ৪ প্রযোজনা স্থান করে নিয়েছে নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায়।

প্রাচ্যনাট
অপেক্ষাকৃত নবীন হলেও বেশ দাপুটে কাজ দেখিয়ে নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার ৩টি প্রযোজনা দর্শকের সামনে এনেছে এই দলটি। সার্কাস সার্কাস, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, রাজা এবং অন্যান্য... হলো দলটির সেই ৩ প্রযোজনা।
 
এবার ‘এই মামলার সাক্ষীসাবুদ’ হাজির করছি।

যে ৭৮ জন বন্ধু আমাদের ডাকে সাড়া দিয়েছেন তাদের কিছু ভাষ্য ও নাটক-নির্বাচন প্রত্যক্ষ করা যাক। নির্বাচকদের নামের ক্রম নির্দিষ্ট কোনোকিছুর উপর ভিত্তি করে করা হয় নি। যেভাবে সাজাতে ভালো লেগেছে, সেভাবেই সাজিয়েছি।

আকতারুজ্জামান
অভিনেতা-নির্দেশক ও বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল আকতারুজ্জামানের নির্বাচিত তালিকার বেশ কয়েকটি প্রযোজনা আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। যেমন- এখনও ক্রীতদাস, কেরামতমঙ্গল, শেষ সংলাপ, চাকা, রাজা এবং অন্যান্য...সহ আরো অনেক প্রযোজনা।

দেবপ্রসাদ দেবনাথ
গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল, নির্দেশক দেবপ্রসাদ দেবনাথ ম্যাকবেথ, লোক সমান লোক, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, কোকিলারা, বিনোদিনী ছাড়াও বেশ কিছু নাটক নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।   

বাকার বকুল
অভিনেতা-নির্দেশক বাকার বকুল বলেছেন সাধারণ দর্শকের চোখে দেখা এবং ভালো লাগাকে প্রাধান্য দিয়ে তিনি নাটক নির্বাচন করেছেন। স্বাধীনতা-পরবর্তী বাংলা আধুনিক নাট্যের গবেষণাধর্মী-বৈশিষ্ট্য তার নির্বাচিত প্রযোজনাগুলোতে আছে বলে তার ব্যক্তিগত মত। তার নির্বাচিত হাতহদাই, কোর্ট মার্শাল, প্রাচ্য, সক্রেটিসের জবানবন্দী, সে রাতে পূর্ণিমা ছিলসহ বেশ কয়েকটি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আশিকুর রহমান লীয়ন
নাট্যশিক্ষক-নির্দেশক আশিকুর রহমান লীয়নের নির্বাচিত প্রযোজনার মধ্যে যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে, সেগুলোর মধ্যে কয়েকটি হচ্ছে- অ্যাম্পিউটেশন, রিজওয়ান, মহাজনের নাও, জ্যোতিসংহিতা, রহু চণ্ডালের হাড়।

সামিউন জাহান দোলা
জয়জয়ন্তী, গোলাপজান, দর্পনে শরৎশশী, আরজ চরিতামৃত, সার্কাস সার্কাসসহ আরো কয়েকটি নাটক অভিনেত্রী সামিউন জাহান দোলা নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

কামাল বায়েজীদ
বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের বর্তমান সেক্রেটারি জেনারেল অভিনেতা কামাল বায়েজীদ তার দৃষ্টিতে ভালো কিছু নাটক নির্বাচন করতে গিয়ে নানকার পালা, ইডিপাস, তুঘলক, গ্যালিলিও, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়সহ বেশ কিছু নাটকের নাম উল্লেখ করেছেন যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

রামিজ রাজু
অভিনেতা-আবহসংগীতপরিকল্পক-নির্দেশক রামিজ রাজু নাটক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অভিনয়, পাণ্ডুলিপি আর নির্দেশনার বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েছেন। তার নির্বাচিত সঙক্রান্তি, দেওয়ান গাজীর কিসসা, ক্রাচের কর্নেল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, মাতব্রিংসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

সুরভী রায়
এই পোড়ার দেশে যেখানে নিয়মিত থিয়েটার করাই একটা চ্যালেঞ্জের ব্যাপার, সেখানে সকল মাপকাঠি উৎরানো নাটক খুঁজে বের করাটা মুশকিল বটে। আমার তালিকায় এমন নাটকের নাম দিয়েছি যাদের অভিনয়ের মান ভালো বা মোটামুটি হলেও পা-ুলিপি নির্বাচন ও নির্দেশকের পরিশ্রমে নাটকগুলো দেখলে ভীষণভাবে উপলব্ধি করা যায়Ñএই কথাগুলো বলেছেন ‘আরণ্যক নাট্যদল’-সদস্য অভিনেত্রী সুরভী রায়। তার নির্বাচিত নাটকের মধ্যে যেগুলো আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে, সেগুলোর কয়েকটি হচ্ছে-এ ম্যান ফর অল সিজনস্, একশ’ বস্তা চাল, অহরকণ্ডল, ময়ূর সিংহাসন, খনাসহ বেশ কয়েকটি প্রযোজনা।

সাইফ সুমন
অভিনেতা-নাট্যকার-নির্দেশক ও ‘থিয়েটারওয়ালা’ পত্রিকার সহযোগী সম্পাদক সাইফ সুমন মনে করেন ‘ভালো থিয়েটার’ ভুরিভুরি হবে- এমনটা আশা করা ঠিক না। আবার ‘ভালো থিয়েটার’ হচ্ছে না, তা-ও ঠিক না। তিনি আরো মনে করেন- একটা ‘থিয়েটার-বিদ্বেষী’ সমাজে থিয়েটারচর্চা যে এগিয়ে যাচ্ছে, ভালো থিয়েটার হচ্ছে, এটাই অনেক বড় ঘটনা। তার নির্বাচিত বিষাদ সিন্ধু, মানগুলা, রাঢ়াঙ, নূরলদীনের সারাজীবন, নিত্যপুরাণসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

অলোক বসু
নাট্যকার-অভিনেতা-নির্দেশক অলোক বসু নাটকের এই জরিপটিকে সাধুবাদ জানালেও এর গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন। তারপরও আমাদের অনুরোধে তিনি তার নির্বাচন-কাজটি করেছেন, এজন্য কৃতজ্ঞতা জানাই। তার নির্বাচিত কহে বীরাঙ্গনা, লেট মি আউট, কিত্তনখোলা, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, গ্যালিলিওসহ আরো বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

মাসুম রেজা
আমি গত শতকের আশির দশক থেকে ঢাকার মঞ্চে নাটক দেখি। অসংখ্য নাটক আমার ভালো লেগেছে। ভালোলাগা নাটকগুলো থেকেই আমার এই নাটক নির্বাচন- কথাগুলো নাট্যকার-নির্দেশক মাসুম রেজার। তার নির্বাচিত এখনও ক্রীতদাস, ধাবমান, খনা, নানকার পালা, বনপাংশুলসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

আউয়াল রেজা
অভিনেতা-নির্দেশক আউয়াল রেজা বলেছেন দর্শকপ্রিয়তা ও উপস্থাপনের মান-বিবেচনায় তিনি প্রধান প্রধান নাটকগুলো নির্বাচন করেছেন। তার নির্বাচিত জ্যোতিসংহিতা, মাতব্রিং, ম্যাকবেথ, ক্রাচের কর্নেল, দর্পণে শরৎশশীসহ বেশ কয়েকটি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।
 
জুলফিকার চঞ্চল
‘থিয়েটারওয়ালা’র ‘ভালো নাটকের বাছাই’ কাজটিতে আমি মুগ্ধ। তবে ভালো নাটক বাছাই করা খুবই কষ্টকর। তারপরও আমার নির্বাচিত নাটগুলো এখনও আমার চোখে ভাসে গল্প, নির্দেশনা, ডিজাইন আর অভিনয়ের জন্য- কথাগুলো বলেছেন অভিনেতা জুলফিকার চঞ্চল। তার নির্বাচিত দেওয়ান গাজীর কিসসা, কোকিলারা, লেট মি আউট, জ্যোতিসংহিতা, রহু চ-ালের হাড়সহ অনেক প্রযোজনা আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

শামীম সাগর
প্রথমত একটি প্রযোজনা তখনই সর্বাঙ্গীণ ‘ভালো থিয়েটার’ হয়ে ওঠে যখন পাণ্ডুলিপি-অভিনয়-নির্দেশনা-ডিজাইন ইত্যাদি মিলিয়ে প্রযোজনাটি জনপ্রিয় হবার থেকে দর্শকমনে আলোড়ন সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়। দর্শককে ভাবায় এবং অনুপ্রাণিত করে- এমত মত অভিনেতা-নির্দেশক শামীম সাগরের। ব্যক্তিভেদে রুচি ও পছন্দের পার্থক্য থাকার পরও তিনি তার নির্বাচিত নাটকগুলোর একটা তালিকা দিয়েছেন। তারমধ্যে বনপাংশুল, জ্যোতিসংহিতা, রহু চণ্ডালের হাড়, ময়ূর সিংহাসন, সক্রেটিসের জবানবন্দীসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

সুমন মজুমদার
অনেক ভালো নাটক দেখেছি, আবার এখন মনে হচ্ছে আহারে কত কত ভালো নাটক দেখা হয়ে উঠল না! তারপরও নাটক নির্বাচন করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছি, এটার নাম নিলে মনে হয় ওটা ভালো, ওটার নাম নিলে মনে হয় সেটা ভালো- কথাগুলো ‘অনুস্বর’-সদস্য নাট্যজন সুমন মজুমদারের। তার নির্বাচিত ময়ূর সিংহাসন, ধাবমান, অহরকণ্ডল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, সার্কাস সার্কাসসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

ঋতু সাত্তার
আমি যে নাটকগুলো বাছাই করলাম, তার ভিত্তিই হচ্ছে কেমন টেক্সট নির্বাচিত হয়েছে এবং তাকে কীভাবে রাজনৈতিক-নিরিখে সৃজনশীলতার প্রক্রিয়ায় নিরীক্ষা করা হয়েছে- কথাগুলো অভিনেত্রী ঋতু সাত্তারের। তার বাছাইকৃত ময়ূর সিংহাসন, হাতহদাই, অহরকণ্ডল, রিজওয়ান, ধাবমানসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

আবু রায়হান
নাট্যকর্মী আবু রায়হান তার নাটক নির্বাচনে গোলাপজান, ময়ূর সিংহাসন, বিনোদিনী, কোকিলারা, সঙক্রান্তিসহ অনেক নাটক বাছাই করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

শিশির রহমান
আমার কাছে নাটকের ভালো-মন্দ বিচার নেই বললেই চলে। যারা প্রাণ থেকে নাটকটা করতে চায়, তাদের মান নিয়ে আমি ভাবি না। এমনিতেই নাটকের লোকেরা এই দেশে সংখ্যালঘু হয়ে যাচ্ছে, মান বিচার করে তাদের নিরুৎসাহিত করার পক্ষে আমি নই। তাছাড়া বাংলাদেশের কোথায় কেমন নাটক হচ্ছে, তার কতটুকু খবরই-বা আমরা রাখি- এমত মনের ভাব প্রকাশ করেছেন অভিনেতা-আবহসংগীতপরিকল্পক-নির্দেশক শিশির রহমান। তারপরও তিনি কিছু নাটক বাছাই করেছেন যেগুলো ভালো প্রযোজনা বলে দাবি করা যায়। তার নির্বাচিত তুঘলক, একশ’ বস্তা চাল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, মাতব্রিং, জ্যোতিসংহিতাসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

ওয়াসিম আহমেদ
‘ঢাকা থিয়েটার’-সদস্য ওয়াসিম আহমেদ জানিয়েছেন তার বাছাইকৃত প্রযোজনার কথা। তার নির্বাচিত ইডিপাস, প্রাচ্য, মানগুলা, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, নিত্যপুরাণসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

শাহমান মৈশান
দূরের বিলাত থেকে এই চিঠি লিখছি। বাংলাদেশের নাট্যচর্চা-সম্পর্কে জ্ঞানসৃষ্টির লক্ষ্যে ‘থিয়েটারওয়ালা’র ধারাবাহিক বিবিধ উদ্যোগের প্রতি সম্মান ও অভিবাদন। প্রযোজনার বিষয়বস্তুর কালসংলগ্নতা, চিরকালীন মানবদশা, স্থানিক-বাস্তবতার সাথে যোগ, বিশ^বিক্ষণ, বিষয়ের অভিনবত্ব, প্রকাশশৈলী, নাট্যগুণ, নির্মাণকুশলতা, অভিনয় ও দৃশ্যজ উপাদানের ঐক্য, সর্বোপরি নাট্যের নান্দনিক ও রাজনৈতিক তাৎপর্য বিবেচনা করে এই তালিকাটি প্রণয়ন করেছি- কথাগুলো নাট্যশিক্ষক-নাট্যকার-নির্দেশক-নাট্যসমালোচক শাহমান মৈশানের। তার নির্বাচিত অহরক-ল, রহু চণ্ডালের হাড়, রিজওয়ান, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, মহাজনের নাওসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

মিন্টু সরদার
‘এথিক’-সদস্য মিন্টু সরদার বলেছেনÑসামগ্রিকভাবে নাটকের ট্রিটমেন্ট ও প্রয়োগের দিকটা বিবেচনা করেই তিনি নাটক নির্বাচন করেছেন। তার নির্বাচিত ধাবমান, দেওয়ান গাজীর কিসসা, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, রাঢ়াঙ, লেট মি আউটসহ কয়েকটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন
চাকা, নূরলদীনের সারাজীবন, জয়জয়ন্তী, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, লোক সমান লোকসহ আরো কিছু নাটক অভিনেতা-ডিজাইনার-নির্দেশক কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন নির্বাচন করেছেন যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা পেয়েছে।

মলয় ভৌমিক
আমি যে প্রযোজনাগুলো নির্বাচন করেছি, সেগুলো নানা কারণে বিশিষ্ট ও আলোচিত। কয়েকটি নাটক তার বিশাল ক্যানভাস, কাব্যগুণ এবং নির্মাণ-নান্দনিকতার জন্য উল্লেখযোগ্য- কথাগুলো বলেছেন নাট্যকার-নির্দেশক মলয় ভৌমিক। তার নির্বাচিত জয়জয়ন্তী, বিষাদ সিন্ধু, নূরলদীনের সারাজীবন, বিনোদিনী, মানগুলাসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

অপু শহীদ
নাট্যকার-নির্দেশক অপু শহীদ যেসব প্রযোজনা নির্বাচন করেছেন তার মধ্যে ম্যাকবেথ, জয়জয়ন্তী, বিষাদ সিন্ধু, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, কিত্তনখোলাসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

সোনিয়া হাসান
‘সুবচন নাট্য সংসদ’ ও ‘ম্যাড থিয়েটার’-সদস্য অভিনেত্রী সোনিয়া হাসান তার দেখা নাটকগুলোর নির্বাচন বিষয়ে বলেছেন- নাটকগুলোর মঞ্চভাবনার অভিনবত্ব, উপস্থাপনায় আভিজাত্য থিয়েটারকে সমৃদ্ধ করেছে। বেশিরভাগ নাটকের সুঅভিনয় তাকে মুগ্ধ করেছে। তার নির্বাচিত ইডিপাস, লেট মি আউট, ময়ূর সিংহাসন, বিনোদিনী, রহু চণ্ডালের হাড় ছাড়াও আরো অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

মিজানুর রহমান
‘বটতলা’-সদস্য অভিনেতা মিজানুর রহমান জানিয়েছেন তার বিবেচনা। তার বাছাইকৃত নূরলদীনের সারাজীবন, বিষাদ সিন্ধু, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, জ্যোতিসংহিতা, রহু চণ্ডালের হাড়সহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

গোলাম শফিক
নাট্যকার গোলাম শফিক বেশ কয়েকটি নাটক নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। যেমন- ম্যাকবেথ, কিত্তনখোলা, অহরকণ্ডল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, একশ’ বস্তা চালসহ আরো অনেক প্রযোজনা।

জিল্লুর রহমান
‘থিয়েটার’-সদস্য নাট্যজন জিল্লুর রহমান যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন, তার মধ্যে বিনোদিনী, কহে বীরাঙ্গনা, নিত্যপুরাণ, খনা, গোলাপজানসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

পান্থ শাহরিয়ার
নাট্যকার-অভিনেতা-নির্দেশক পান্থ শাহরিয়ার যে সব নাটক নির্বাচন করেছেন সেগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি নাটকই নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে। এগুলোর মধ্যে আছে- তুঘলক, সার্কাস সার্কাস, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, দর্পণে শরৎশশী, কিত্তনখোলা।

সামিনা লুৎফা নিত্রা
আমার কাছে যেকোনো নাটক ভালো লাগতে হলে পাণ্ডুলিপি আর কন্টেন্ট পছন্দ হতেই হয়। কাজেই নাটক বাছাই করতে গিয়ে আমি পাণ্ডুলিপির উপর জোর দিয়েছি। তাছাড়া এই নাটকগুলোর ডিজাইনের ক্ষেত্রে বেশ ভালো কাজ হয়েছে- কথাগুলো অভিনেত্রী-নাট্যকার সামিনা লুৎফা নিত্রার। তার বাছাইকৃত মানগুলা, বনপাংশুল, অ্যাম্পিউটেশন, রহু চণ্ডালের হাড়, গোলাপজানসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

অম্লান বিশ্বাস
আলোকপরিকল্পক নাট্যজন অম্লান বিশ্বাস যেগুলো নির্বাচন করেছেন, তার মধ্যে বিনোদিনী, কহে বীরাঙ্গনা, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, বিষাদ সিন্ধু, জয়জয়ন্তীসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।
 
মাহমুদুল ইসলাম সেলিম
অনেক ভালো থিয়েটারও আমার বিবেচনা থেকে বাদ পড়ে গেল, কারণ, সীমিতসংখ্যক নাটক নির্বাচন করতে হয়েছে। তারপরও মৌলিক নাটক থেকে ভালো নাট্যভাবনায় যে থিয়েটার হয়ে উঠেছে সেগুলোই আমার প্রস্তাবনা বলে বিবেচনা করবেন- এভাবেই জানিয়েছেন অভিনেতা-নাট্যকার মাহমুদুল ইসলাম সেলিম। তার বিবেচনার ময়ূর সিংহাসন, ধাবমান, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, নানকার পালা, আরজ চরিতামৃতসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

আসাদুল ইসলাম
নাট্যকার-অভিনেতা-নির্দেশক আসাদুল ইসলাম যেগুলো বাছাই করেছেন, তার মধ্যে ইডিপাস, রিজওয়ান, লেট মি আউট, ময়ূর সিংহাসন, অ্যাম্পিউটেশনসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

ইউসুফ হাসান অর্ক
নাট্যশিক্ষক-অভিনেতা-সংগীতপরিকল্পক-নির্দেশক ইউসুফ হাসান অর্ক বেশ কয়েকটি প্রযোজনা নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। যেমন- চাকা, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, দর্পণে শরৎশশী, ইডিপাসসহ অনেক প্রযোজনা।

আশরাফুল আলম রন্টু
‘নাট্যকেন্দ্র’-সদস্য নাট্যজন আশরাফুল আলম রন্টু ‘অল্পস্বল্প বিদ্যা আর বুদ্ধিতে’ তার পছন্দের নাটকগুলো নির্বাচন করেছেন- এমতই বিনয় তার প্রকাশভঙ্গীতে। তিনি আরো বলেছেন, যে সব নাটক তাকে উদ্বুদ্ধ করেছে, ভাবতে শিখিয়েছে, যে সব নাটক তাকে উৎফুল্ল করেছে, সে সব নাটকই তিনি বাছাই করেছেন। তার নির্বাচিত গ্যালিলিও, রিজওয়ান, ক্রাচের কর্নেল, শেষ সংলাপ, দর্পণে শরৎশশীসহ বেশ কিছু নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

সংগীতা চৌধুরী
আমার মতে একটি সফল প্রযোজনার অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো দলটি তাদের গল্প কতটা অভিনব উপায়ে এবং সহজভাবে দর্শকের কাছে বলতে পারে। থিয়েটারে গল্প বলার সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম আমার কাছে অভিনয়। একটি প্রযোজনার অভিনয়শৈলী যতটা চমকপ্রদ, সেটা ততই দর্শকের কাছে আন্তরিক। তবে শিল্পচর্চায় অসাধারণের সীমাহীন প্রতিযোগিতায় নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে প্রতিটি প্রযোজনাতেই অভিনয়ের পাশাপাশি যোগ করতে হয় অভিনব নাট্যনির্মাণকৌশল, অর্থবহ ও চমকপ্রদ ডিজাইন এবং সুষ্ঠু মঞ্চব্যবস্থাপনা- এমত মনে করেন ‘নাট্যকেন্দ্র’-সদস্য অভিনেত্রী সংগীতা চৌধুরী। তার নির্বাচিত ধাবমান, কোর্ট মার্শাল, লেট মি আউট, মাতব্রিং, মহাজনের নাওসহ বেশ কিছু নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

মোহাম্মদ আলী হায়দার
আমি ভালো নাটক বলতে সেগুলোই বুঝি, যেগুলোর কিছু মোমেন্ট, বিষয়বস্তু, নির্মাণ, অভিনয়-ধরন, দলবদ্ধ সৃজনক্ষমতা আমার স্মৃতিতে সারাজীবন থাকবে। সেটা হতে পারে ৩০ বছর আগের দেখা কিংবা ১ বছর আগের- কথাগুলো নির্দেশক-অভিনেতা মোহাম্মদ আলী হায়দারের। তার বাছাইকৃত হাতহদাই, মানগুলা, জয়জয়ন্তী, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, লেট মি আউটসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

পাভেল রহমান
থিয়েটারবিষয়ক পত্রিকা ‘ক্ষ্যাপা’র সম্পাদক পাভেল রহমানের নির্বাচিত কহে বীরাঙ্গনা, গোলাপজান, খনা, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টসসহ বেশ কয়েকটি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

জুনায়েদ ইউসুফ
প্রথমত নাটকের পাণ্ডুলিপি, দ্বিতীয়ত অভিনয়। আর আমার নিজের যেহেতু মূল-আগ্রহের বিষয় পরিকল্পনা বা ডিজাইন, তাই আমার নাটক দেখা মানে সার্বিক-পরিকল্পনা দেখা- কথাগুলো বলেছেন অভিনেতা-ডিজাইনার-নির্দেশক জুনায়েদ ইউসুফ। তার নির্বাচিত বনপাংশুল, কোর্ট মার্শাল, রিজওয়ান, গ্যালিলিও, কোকিলারা, নিত্যপুরাণসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

অনন্ত হিরা
নাট্যকার-নির্দেশক-অভিনেতা অনন্ত হিরার নির্বাচিত শেষ সংলাপ, এ ম্যান ফর অল সিজনস, নিত্যপুরাণ, কোর্ট মার্শাল, এখনও ক্রীতদাসছাড়াও আরো অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

সাইদুর রহমান লিপন
নাট্যশিক্ষক-অভিনেতা-নির্দেশক সাইদুর রহমান লিপন যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন, তার মধ্যে মানগুলা, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, চাকা, নূরলদীনের সারাজীবন, ক্রাচের কর্নেলসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

মনিরুল ইসলাম রুবেল
‘প্রাচ্যনাট’-সদস্য অভিনেতা মনিরুল ইসলাম রুবেল মনে করেন নাটকের গল্প, ডিজাইন, অভিনয় আর নির্দেশনা, সব মিলেই আসলে একটা ভালো প্রযোজনা হয়ে ওঠে। তার নির্বাচিত ময়ূর সিংহাসন, নিত্যপুরাণ, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, খনাসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আইরিন পারভীন লোপা
আমি মনে করি, এটাই সম্পূর্ণ তালিকা নয়, কারণ, আরো অনেক মানসম্মত নাটক বাংলাদেশের মঞ্চে মঞ্চায়িত হয়েছে। আমি মনে করি এ বিষয়ে বিস্তারিত গবেষণা আবশ্যক। তাহলে আমাদের পরবর্তী-প্রজন্ম এই সমস্ত গবেষণামূলক কাজ দেখে বা পড়ে জ্ঞান অর্জন করে মঞ্চনাটকের সঙ্গে যুক্ত হবে- কথাগুলো বলেছেন ডিজাইনার-নির্দেশক আইরিন পারভীন লোপা। তার তালিকাভুক্ত ইডিপাস, মানগুলা, খনা, মহাজনের নাও, এ ম্যান ফর অল সিজনসসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

সুদীপ চক্রবর্তী
সুদুর বিলাত থেকে নাট্যশিক্ষক-নির্দেশক সুদীপ চক্রবর্তী যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন তার মধ্যে বিনোদিনী, সার্কাস সার্কাস, ময়ূর সিংহাসন, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রিজওয়ানসহ বেশ কটি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

ফজলে রাব্বি সুকর্ণ
‘স্বপ্নদল’-সদস্য, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির কর্মকর্তা ফজলে রাব্বি সুকর্ণের নির্বাচিত বেশ কয়েকটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। যেমন- মানগুলা, রিজওয়ান, আরজ চরিতামৃত, রাঢ়াঙ, রহু চণ্ডালের হাড়সহ আরো অনেক প্রযোজনা।

ফেরদৌস আমিন বিপ্লব
‘থিয়েটার আর্ট ইউনিট’-সদস্য, অভিনেতা ফেরদৌস আমিন বিপ্লবের নির্বাচিত খনা, চাকা, লোক সমান লোক, অ্যাম্পিউটেশন, তুঘলকসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আহসান হাবিব নাসিম
অভিনেতা-আবহসংগীতপরিকল্পক আহসান হাবিব নাসিম তার বিবেচনা জানিয়ে যেসব নাটক বাছাই করেছেন, তারমধ্যে সঙক্রান্তি, সক্রেটিসের জবানবন্দী, ময়ূর সিংহাসন, গোলাপজান, রাজা এবং অন্যান্য...সহ আরো অনেক নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

পিয়ার মোহাম্মাদ
কহে বীরাঙ্গনা, গোলাপজান, অহরকণ্ডল, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, লেট মি আউটসহ অনেকগুলো নাটক নির্বাচন করেছেন ‘অনুস্বর’-সদস্য নাট্যজন পিয়ার মোহাম্মদ, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

কাজী রোকসানা রুমা
বিষয়বস্তু, অভিনয়, সার্বিক-ডিজাইন ভালো লাগার কারণে আরজ চরিতামৃত, রিজওয়ান, রহু চণ্ডালের হাড়, লেট মি আউট, বনপাংশুলসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচন করেছেন ‘বটতলা’-সদস্য অভিনেত্রী কাজী রোকসানা রুমা, যে তালিকার অনেক নাটকই আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আবু সাঈদ তুলু
নাট্যসমালোচক আবু সাঈদ তুলু যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন, তারমধ্যে ধাবমান, রিজওয়ান, রহু চণ্ডালের হাড়, মাতব্রিং, জ্যোতিসংহিতাসহ আরো কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

এ কে আজাদ সেতু
এই প্রযোজনাগুলো পাণ্ডুলিপি থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে সময়োপযোগী এবং আকর্ষণীয়। একজন দর্শক হিসেবে আমি প্রথমেই বিবেচনা করি, প্রযোজনাটি আমাকে কতটা আকৃষ্ট করতে পারছে- এ কথাগুলো বলেছেন অভিনেতা এ কে আজাদ সেতু। তার নির্বাচিত বিষাদ সিন্ধু, কোর্ট মার্শাল, মাতব্রিং, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, লেট মি আউটসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

রতন দেব
নাটকের সংলাপ, ঘটনা বা থিম দর্শক হিসেবে আমার কাছে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। কিন্তু ভালো পা-ুলিপি মানেই ভালো থিয়েটার তাও তো নয়। আবার অনেক সময় পা-ুলিপি, নির্দেশনা ছাড়িয়ে অভিনয় এবং সমসাময়িক প্রেক্ষাপট নাটককে গুরুত্বপূর্ণ এবং হৃদয়গ্রাহী করে তোলে- এমনটাই মনে করেন অভিনেতা রতন দেব। তার বাছাইকৃত তুঘলক, একশ’ বস্তা চাল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, জ্যোতিসংহিতা, সে রাতে পূর্ণিমা ছিলসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আমিনুর রহমান মুকুল
অভিনেতা-নির্দেশক আমিনুর রহমান মুকুল মনে করেন যখন কোনো নাটক তাকে নিবিষ্ট করে, ভাবায়, পুলকিত করে তখন সেই নাটকটিকেই তিনি ভালো নাটক বলেন। তবে এটা অনেক সময় নির্ভর করে নাটকটি কখন দেখছেন, কোন বয়সে, কোন মেজাজে এবং নাটকের বিষয়বস্তু কী, কারিগরি-অভিনয় সৌকর্যÑইত্যাদির নানা বিষয়ের উপর। তার নির্বাচিত তুঘলক, শেষ সংলাপ, গ্যালিলিও, হাতহদাই, নিত্যপুরাণ প্রযোজনাসহ আরো বেশ কয়েকটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

কামালউদ্দিন কবির
তাৎপর্যপূর্ণ বিষয়ের সঙ্গে আঙ্গিক অর্থাৎ অভিনয় ও ডিজাইনের পরিশীলিত/নান্দনিক প্রয়োগকে মুখ্য বিবেচনায় রেখে নাট্যশিক্ষক-ডিজাইনার-নির্দেশক কামালউদ্দিন কবির ‘ভালো থিয়েটার’ নির্বাচন করেছেন। তার নির্বাচিত ময়ূর সিংহাসন, ধাবমান, সক্রেটিসের জবানবন্দী, বনপাংশুল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টসসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

এহসানুল আজিজ বাবু
‘দেশ নাটক’-সদস্য নাট্যজন এহসানুল আজিজ বাবুর নির্বাচিত নাটগুলোর মধ্যে ম্যাকবেথ, বনপাংশুল, ক্রাচের কর্নেল, মাতব্রিং, লেট মি আউটসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

দেবাশীষ ঘোষ
নির্দেশক দেবাশীষ ঘোষ বলেছেন তিনি নাটক নির্বাচনের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো বিবেচনায় রেখেছেন তা হলো- পাণ্ডুলিপি, অভিনয়, ডিজাইন এবং নির্দেশনায় বাংলাদেশের নাট্যজগতে যেসব নাটক নতুন বাঁক নিয়েছে। তার নির্বাচিত ম্যাকবেথ, শেষ সংলাপ, মানগুলা, এখনও ক্রীতদাস, খনাছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

বাবুল বিশ্বাস
‘থিয়েটারওয়ালা’র প্রস্তাবনায় আমার সম্মতি আছে, কিন্তু ভীতিও আছে। কারণ, এ ব্যাখ্যায় বিচার-সংশ্লেষ কিছুটা হলেও বিপদ ঘটাবে। তারপরও আমি আমার দেখা আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটের নাটকগুলোর বিষয়বস্তু এবং উপস্থাপনার দিক বিবেচনা করেই আমাদের প্রযোজনাগুলোর তালিকা সাজাবো। এ ক্ষেত্রে আমি মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী সমাজবীক্ষণকে গুরুত্ব দিয়েছি- এই কথাগুলো গবেষক-নাট্যজন বাবুল বিশ্বাসের। তিনি আরো বলেন- আমি নাটক যখন দেখি, তখন দুটি বিষয় প্রথমেই গুরুত্ব দেই, তা হলো, নাটকের বিষয়বস্তু আর প্রযোজনার মান। মুক্তিযুদ্ধ-সমাজ-রাজনীতি আর নারীকে বিবেচনায় রেখে তিনি সার্কাস সার্কাস, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, নিত্যপুরাণ, লোক সমান লোক, কোকিলারাসহ বেশ কিছু প্রযোজনা নির্বাচন করেছেন যেগুলো আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

আহমেদ গিয়াস
অভিনেতা আহমেদ গিয়াসের নির্বাচিত শেষ সংলাপ, রিজওয়ান, ময়ূর সিংহাসন, নূরলদীনের সারাজীবন, আরজ চরিতামৃতসহ বেশ কটি নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

প্রশান্ত হালদার
অভিনেতা-নাট্যকার প্রশান্ত হালদারের নির্বাচিত ইডিপাস, খনা, কহে বীরাঙ্গনা, গ্যালিলিও, বনপাংশুলসহ বেশ কিছু প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আরিফ হায়দার
আমার বিবেচনায় ‘ভালো থিয়েটার’ হয়ে ওঠে তখনই, যখন, অভিনয়-আলো-সেট-প্রপস-রূপসজ্জা-কস্টিউম-সংলাপপ্রক্ষেপণ সমস্ত কিছু একে অপরের পরিপূরক হয়ে ওঠে- এমত ধারণা নাট্যশিক্ষক-নির্দেশক আরিফ হায়দারের। তার নির্বাচিত ম্যাকবেথ, গোলাপজান, একশ’ বস্তা চাল, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রাজা এবং অন্যান্য...সহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

তপন হাফিজ
নাট্যতীর্থ-সদস্য অভিনেতা-নির্দেশক তপন হাফিজ জানিয়েছেন তার নির্বাচনের বাইরেও অনেক ভালো প্রযোজনা রয়ে গেছে। নির্দিষ্ট সংখ্যক নাটক নির্বাচন করার অনুরোধে সেগুলোকে তালিকায় আনা গেল না। তার নির্বাচিত কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, রাঢ়াঙ, তুঘলক, ইডিপাস ছাড়াও অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

মোশাররফ হোসেন টুটুল
সেন্টার ফর এশিয়ান থিয়েটার-সদস্য মোশাররফ হোসেন টুটুল বলেছেন, কিছু নাটক কখনো তার শিল্পকে, কখনো তার মুক্তিযুদ্ধকে, কখনো তার দেশকে, সংস্কৃতিকে, ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করেছে। তার চিন্তা-ভাবনার শক্তি যুগিয়েছে। সেই সব নাটক থেকেই তিনি নাটকগুলো নির্বাচন করেছেন। তার নির্বাচিত মহাজনের নাও, জয়জয়ন্তী, হাতহদাই, বিষাদ সিন্ধু, কহে বীরাঙ্গনাসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা পেয়েছে।

এজাজ বারী
যেসব নাটক তাকে ভাবিয়েছে, মন ছুঁয়েছে সেসব নাটকের মধ্যে বাছাই করে কিছু নাটক নির্বাচন করেছেন অভিনেতা এজাজ বারী। তার মধ্যে এখনও ক্রীতদাস, হাতহদাই, অ্যাম্পিউটেশন, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, আরজ চরিতামৃতসহ অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

অনিকেত পাল  
‘পালাকার’-সদস্য কোরিওগ্রাফার-ডিজাইনার অনিকেত পাল তালিকার বাইরেও বেশ কয়েকটি নাটকের নাম দিয়েছেন। তার নির্বাচিত অ্যাম্পিউটেশন, শেষ সংলাপ, মহাজনের নাও, ক্রাচের কর্নেল, সার্কাস সার্কাস ছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

গোলাম সারোয়ার
আমি যেসব নাটক নির্বাচন করেছি, সেগুলো সমসাময়িক সময়ের সফল প্রযোজনা এবং একই সাথে দর্শকপ্রিয় নাটক- বলেছেন নির্দেশক গোলাম সারোয়ার। এগুলোর মধ্যে কিত্তনখোলা, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, দেওয়ান গাজীর কিসসা, বিষাদ সিন্ধু, রাজা এবং অন্যান্য...সহ কিছু নাটককে তিনি মনে করেন আমাদের থিয়েটারচর্চার টার্নিং পয়েন্ট। উল্লিখিত প্রযোজনা ছাড়াও তার নির্বাচিত আরো বেশ কিছু প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।  

মোহাম্মদ বারী
অভিনেতা-নাট্যকার-নির্দেশক মোহাম্মদ বারী যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন সেগুলোর মধ্যে চাকা, শেষ সংলাপ, তুঘলক, লেট মি আউট, একশ’ বস্তা চালসহ গত শতকের ৭০-৮০-৯০ দশকের বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক
নাটক বিচারের প্রধান শর্ত নাটকটা দর্শকের চেতনাকে কতটা ঘা দিতে পেরেছে, কতটা দর্শককে ভাবাতে পেরেছে। সবসময় যে সেটা রাজনৈতিক নাটক হতে হবে তা নয়, সামাজিক নানা দ্বন্দ্ব বা মানবিক নানা প্রশ্নেও সেটা হতে পারে- এমত বক্তব্য একজন নির্বাচকের, যিনি তার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। তিনি আরো মনে করেন- নাটক দর্শককে প্রধানত আকৃষ্ট করে তার দ্বন্দ্ববহুল বিষয়বস্তুর জন্য। দ্বিতীয়ত নাটকের ঘটনা, ঘটনা-পরম্পরার মধ্যে সম্পর্ক তৈরি, বিভিন্ন চরিত্রসৃষ্টি এবং সংলাপের মধ্য দিয়ে নাটক কতটা দর্শককে টানটান উত্তেজনার মধ্যে রাখতে পেরেছে সে বিচারে তার সাফল্য নির্ধারিত হয়।

অভিজিৎ সেনগুপ্ত
একটি ভালো প্রযোজনা বলতে আমি মনে করি নাটকের বিষয়বস্তু, নির্মাণকৌশল, সুঅভিনয় এবং সর্বোপরি দলগত-উৎকর্ষতা। সেই আলোকে আমি নাটকগুলো নির্বাচন করেছি- কথাগুলো বলেছেন সম্পাদক-অভিনেতা-নির্দেশক অভিজিৎ সেনগুপ্ত। তার নির্বাচিত তুঘলক, শেষ সংলাপ, সক্রেটিসের জবানবন্দী, কহে বীরাঙ্গনা, শাইলক এন্ড সিকোফ্যান্টসসহ আরো অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

আজাদ আবুল কালাম
অভিনেতা-নাট্যকার-নির্দেশক আজাদ আবুল কালাম যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন, তারমধ্যে কিত্তনখোলা, নানকার পালা, তুঘলক, রহু চণ্ডালের হাড়, দর্পণে শরৎশশীসহ বেশ কিছু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

শফি আহমেদ
নাট্যসমালোচক অধ্যাপক শফি আহমেদের নির্বাচিত রিজওয়ান, মহাজনের নাও, সক্রেটিসের জবানবন্দী, লেট মি আউট, কহে বীরাঙ্গনাসহ গত শতকের ৭০-৮০-৯০ দশকের অনেক নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

ফয়েজ জহির
ডিজাইনার-নাট্যপ্রশিক্ষক-নির্দেশক ফয়েজ জহিরের নির্বাচিত তুঘলক, লেট মি আউট, সক্রেটিসের জবানবন্দী, অহরকণ্ডল, ময়ূর সিংহাসনসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

বিপ্লব বালা
স্বাধীনতার পর থেকে সব দশকেরই কিছু ভালো নাটকের সন্ধান দিয়েছেন নাট্যশিক্ষক-নাট্যসমালোচক ড. বিপ্লব বালা। তার নির্বাচিত কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, নানকার পালা, বনপাংশুল, এ ম্যান ফর অল সিজনস্, সক্রেটিসের জবানবন্দীসহ বহু নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

শাহ আলম দুলাল
অভিনেতা-নির্দেশক শাহ আলম দুলাল যেসব নাটক নির্বাচন করেছেন, সেগুলোর মধ্যে ম্যাকবেথ, বিষাদ সিন্ধু, দেওয়ান গাজীর কিসসা, সক্রেটিসের জবানবন্দী, সার্কাস সার্কাসসহ বেশ কটি নাটক নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

আব্দুল্লাহেল মাহমুদ
নাট্যকার আব্দুল্লাহেল মাহমুদ জানিয়েছেন- কাজটি খুব কঠিন, তারপরও সম্পাদকের ক্রমাগত তাগাদা উপেক্ষা করতে না পেরে তার নির্বাচিত নাটকের একটি তালিকা পাঠালেন। তার পাঠানো কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, বিষাদ সিন্ধু, অহরকণ্ডল, সক্রেটিসের জবানবন্দী, কিত্তনখোলা ছাড়াও আরো কয়েকটি প্রযোজনা নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

নাসির উদ্দিন ইউসুফ
নির্দেশক নাসির উদ্দিন ইউসুফের বিবেচনায় স্বাধীনতার পর থেকে প্রতিবছরই অনেক ভালো ভালো প্রযোজনা হয়েছে, এখনও হচ্ছে। এর ভিতর থেকে ‘কিছু নাটক’ নির্বাচন করা বেশ সমস্যা বৈকি। তারপরও সীমাবদ্ধতা মেনেই তিনি নিত্যপুরাণ, রহু চণ্ডালের হাড়, কহে বীরাঙ্গনা, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, সার্কাস সার্কাসসহ গত শতকের ৭০-৮০-৯০ দশকের অনেক নাটক নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

মফিদুল হক
স্বাধীনতার পর থেকে সব দশকেরই কিছু ভালো নাটকের সন্ধান দিয়েছেন নাট্যসমালোচক মফিদুল হক। গত শতকের ৭০ দশক থেকে বর্তমান-পর্যন্ত অনেক নাটক তিনি নির্বাচন করেছেন তার তালিকায়। তার নির্বাচিত কিত্তনখোলা, কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, ময়ূর সিংহাসন, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রাজা এবং অন্যান্য...সহ বেশ কয়েকটি নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

রামেন্দু মজুমদার
স্বাধীনতা-পরবর্তী বাংলাদেশের নাট্যচর্চাকে বেগবান ও গতিশীল করার অগ্রপথিক রামেন্দু মজুমদার তার প্রযোজনা-নির্বাচনে সব দশকের ‘ভালো থিয়েটার হয়ে ওঠা’ নাটকগুলোকেই স্পর্শ করেছেন। যদিও তার নির্বাচন-তালিকার বাইরেও বহু ভালো নাটক হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। তার নির্বাচিত ইডিপাস, কহে বীরাঙ্গনা, শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, রিজওয়ান, মহাজনের নাওসহ অনেক নাটক আমাদের নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

এবং
মান্নান হীরা (মৃত্যু-২৩ ডিসেম্বর ২০২০)
একমাত্র নির্বাচক যিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। তাঁর এই অকালপ্রয়াণ থিয়েটারের অপূরণীয় ক্ষতি করে গেল। মান্নান হীরা ক্রাচের কর্নেল, মাতব্রিং, লেট মি আউট, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল, জ্যোতিসংহিতাসহ গত শতকের ৭০ দশক থেকে বর্তমান-পর্যন্ত অনেক নাটক তিনি নির্বাচন করেছেন, যেগুলো নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার তালিকায় স্থান পেয়েছে।  

আমরা ইতোমধ্যে নির্বাচিত ৫০ প্রযোজনার নাম জেনে গেছি। মঞ্চে আসার সময়কাল ধরে প্রযোজনাগুলো হলো:
পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় (থিয়েটার, নাটক সরণি)।। দেওয়ান গাজীর কিসসা (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়)।। কিত্তনখোলা (ঢাকা থিয়েটার)।। কোপেনিকের ক্যাপ্টেন (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়)।। নূরলদীনের সারাজীবন (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়)।। এখনও ক্রীতদাস (থিয়েটার, নাটক সরণি)।। ম্যাকবেথ (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় ও থিয়েটার, নাটক সরণি)।। কেরামতমঙ্গল (ঢাকা থিয়েটার)।। নানকার পালা (আরণ্যক নাট্যদল)।। গ্যালিলিও (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়)।। হাতহদাই (ঢাকা থিয়েটার)।। কোকিলারা (থিয়েটার, নাটক সরণি)।। বিষাদ সিন্ধু (ঢাকা পদাতিক)।। চাকা (ঢাকা থিয়েটার)।। শেষ সংলাপ (গণায়ন নাট্য সম্প্রদায়)।। দর্পনে শরৎশশী (দেশ নাটক)।। তুঘলক (নাট্যকেন্দ্র)।। কোর্ট মার্শাল (থিয়েটার আর্ট ইউনিট)।। লোক সমান লোক (আইটিআই)।। গোলাপজান (থিয়েটার আর্ট ইউনিট)।। ইডিপাস (তির্যক)।। জয়জয়ন্তী (আরণ্যক নাট্যদল)।। সক্রেটিসের জবানবন্দী (দৃশ্যপট)।। বনপাংশুল (ঢাকা থিয়েটার)।। সার্কাস সার্কাস (প্রাচ্যনাট)।। এ ম্যান ফর অল সিজনস্ (প্রাচ্যনাট)।। ময়ূর সিংহাসন (আরণ্যক নাট্যদল)।। আরজ চরিতামৃত (নাট্যকেন্দ্র)।। প্রাচ্য (ঢাকা থিয়েটার)।। সঙক্রান্তি (আরণ্যক নাট্যদল)।। নিত্যপুরাণ (দেশ নাটক)।। রাঢ়াঙ (আরণ্যক নাট্যদল)।। বিনোদিনী (ঢাকা থিয়েটার)।। মানগুলা (পালাকার)।। একশ’ বস্তা চাল (বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, জাপান দূতাবাস, জাপান ফাউন্ডেশন, জাপান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি’ যৌথ-প্রযোজনা)।। অহরকণ্ডল (জন্মসূত্র)।। অ্যাম্পিউটেশন (সেন্টার ফর এশিয়ান থিয়েটার)।। রাজা এবং অন্যান্য... (প্রাচ্যনাট)।। ধাবমান (ঢাকা থিয়েটার)।। খনা (বটতলা)।। কহে বীরাঙ্গনা (মণিপুরি থিয়েটার)।। মহাজনের নাও (সুবচন নাট্য সংসদ)।। শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস (থিয়েটারওয়ালা রেপাটরি)।। জ্যোতিসংহিতা (জীবন সংকেত)।। সে রাতে পূর্ণিমা ছিল (আরশিনগর)।। ক্রাচের কর্নেল (বটতলা)।। মাতব্রিং (বিবর্তন যশোর)।। রিজওয়ান (নাটবাঙলা)।। রহু চণ্ডালের হাড় (আরশিনগর)।। লেট মি আউট (তাড়ুয়া)।।

আমরা জানি, অনেকেই এই তালিকার সাথে সর্বাংশে একমত হবেন না। ওই ওই প্রযোজনা তালিকায় আসা উচিত ছিল- ইত্যাদি ধরনের মন্তব্যও কেউ কেউ করবেন। এমন মনোভাব কিন্তু তালিকায় আসা প্রযোজনাগুলোকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে। মনে রাখা দরকার, আপনার আকাক্সিক্ষত প্রযোজনা অন্তর্ভুক্ত করতে হলে, নির্বাচিত তালিকা থেকে যেকোনো প্রযোজনা বাদ দিতে হবে। আমাদের তালিকায় এমন কোনো প্রযোজনা সহসা মিলবে বলে মনে হচ্ছে না। সবচেয়ে বড় কথা, আমাদের ৭৮ জন নির্বাচকের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠবে বলে মনে করি না, সুতরাং তাদের মতামতকে গুরুত্বের সাথে নেয়াই সমীচীন বলে মনে করি।

তবে কারো যদি খুব বড় ধরনের আপত্তি থাকে, তার কাছে বিনীত অনুরোধ, এর চেয়ে ভালো জরিপ যেন তিনি করেন এবং সেই জরিপের ফলাফলটা যেন আমরা জানতে পারি। প্রয়োজনে তার জরিপ-কাজেও ‘থিয়েটারওয়ালা’ পাশে থাকবে।

এবার যুক্ত করি নির্বাচকদের নির্বাচন করা ২৩৯টি প্রযোজনার নাম। নাট্যদলের আদ্যক্ষরের ক্রম হিসেবে নামগুলো দেয়া হলো:

বহে প্রান্তজন, উত্তরখনা, বুদেরামের কূপে পড়া (অনুশীলন, রাজশাহী)।। অনুদ্ধারণীয় (অনুস্বর)।। পাপপূণ্য, লালসালু (অরিন্দম, চট্টগ্রাম)।। লোক সমান লোক, টেম্পেস্ট (আইটিআই)।। অন্ধকারে মিথেন (আগন্তুক)।। রাত ভ’রে বৃষ্টি (আপস্টেজ)।। নানকার পালা, জয়জয়ন্তী, রাঢ়াঙ, ময়ূর সিংহাসন, সঙক্রান্তি, আগুনমুখা, ওরা কদম আলী, খেলাখেলা, ইবলিশ, গিনিপিগ, কোরিওলেনাস (আরণ্যক নাট্যদল)।। রহু চণ্ডালের হাড়, সে রাতে পূর্ণিমা ছিল (আরশিনগর)।। সাম্পান্যাইয়া (উত্তরাধিকার, চট্টগ্রাম)।। হাফ আখড়াই, বৌবসন্তী, চিলেকোঠার সেপাই, রাজনৈতিক হত্যা (উদীচী)।। চণ্ডীদাস (এথিক)।। এ নিউ টেস্টামেন্ট অব রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট (এম্পটি স্পেস, ঢাকা)।। টুয়েলভ অ্যাংরি ম্যান, অ্যান্ড দেন দেয়ার ওয়ার নান (ওপেন স্পেস থিয়েটার)।। পুতুল খেলা (কণ্ঠশীলন)।। নির্বাসন দণ্ড (কারক নাট্য সম্প্রদায়)।। জুলিয়াস সিজারের শেষ সাতদিন (কালপুরুষ নাট্য সম্প্রদায়)।। মাধবী (কালিক)।। শেষ সংলাপ (গণায়ন নাট্য সম্প্রদায়, চট্টগ্রাম)।। বিপ্লব গাথা (চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থিয়েটার)।। অহরকণ্ডল (জন্মসূত্র)।। রাজার চিঠি (জাগরণী থিয়েটার, সাভার)।। জ্যোতি সংহিতা (জীবন সংকেত, হবিগঞ্জ)।। ভাঙ্গা মানুষের পালা (ঢাকা ড্রামা)।। হাতহদাই, কিত্তনখোলা, বনপাংশুল, ধাবমান, কেরামতমঙ্গল, চাকা, প্রাচ্য, বিনোদিনী, নিমজ্জন, যৈবতী কন্যার মন, ধূর্ত উই, ন নৈরামণি, ফণিমনসা (ঢাকা থিয়েটার)।। রোমিও ও জুলিয়েট (ঢাকা থিয়েটার ও ব্রিটিশ কাউন্সিল)।। ঘরজামাই (ঢাকা থিয়েটার মঞ্চ)।। বিষাদ সিন্ধু, ইনসপেক্টর জেনারেল, আমিনা সুন্দরী, কথা’৭১, আহ্ কমরেড, ইংগিত, গণশত্রু, তালপাতার সেপাই, গণি মিয়া একদিন (ঢাকা পদাতিক)।। হনন, দায় (ঢাকা প্রসেনিয়াম)।। লেট মি আউট (তাড়ুয়া)।। ইডিপাস, ডাকঘর, সমাধান, ভোমা, বিসর্জন, তরঙ্গভঙ্গ, এজ ইউ লাইক ইট (তির্যক, চট্টগ্রাম)।। সারারাত্তির (তীরন্দাজ)।। ব্যতিক্রম (থিয়েটার ’৭৩)।। দুই বোন, সেনাপতি, এখন দুঃসময়, সুবচন নির্বাসনে, কোকিলারা, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়, ম্যাকবেথ (যৌথ-নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়), এখনও ক্রীতদাস, তোমরাই, যুদ্ধ এবং যুদ্ধ, স্পর্ধা (থিয়েটার)।। সাত ঘাটের কানাকড়ি (থিয়েটার, আরামবাগ)।।  মুক্তি, মেরাজ ফকিরের মা,  একা, সাত বেহারার পালকি (থিয়েটার, নাটক সরণি)।। শাইলক এ্যান্ড সিকোফ্যান্টস, জবর আজব ভালোবাসা (থিয়েটারওয়ালা রেপাটরি)।। আষাঢ়স্য প্রথম দিবসে (থিয়েটার ফ্যাক্টরি)।। নননপুরের মেলায় একজন কমলাসুন্দরী এবং একটি বাঘ আসে (থিয়েটার’৫২)।। গোলাপজান, কোর্ট মার্শাল, আমিনা সুন্দরী, সময়ের প্রয়োজনে, না-মানুষি জমিন, স্বপ্ন দ্যাখো মানুষ (থিয়েটার আর্ট ইউনিট)।। দক্ষিণা সুন্দরী (থিয়েট্রেক্স বাংলাদেশ)।। বিসর্জন (দশরূপক)।। নিত্য পুরাণ, লোহা, দর্পণে শরৎশশী, বিরসা কাব্য (দেশ নাটক)।। সক্রেটিসের জবানবন্দী (দৃশ্যপট)।। নভেরা (ধ্রুপদী অ্যাক্টিং স্পেস)।। কন্যাদান (নন্দন)।। প্রাগৈতিহাসিক, আকাশে ফুইটেছে ফুল (নাগরিক নাট্যাঙ্গন)।। কোপেনিকের ক্যাপ্টেন, ম্যাকবেথ (যৌথ-থিয়েটার, নাটক সরণি) নূরলদীনের সারাজীবন, সৎ মানুষের খোঁজে, দেওয়ান গাজীর কিসসা, গ্যালিলিও, অচলায়তন, খাট্টা তামাশা, রক্তকরবী, ঈর্ষা, মুখোশ, ওপেন কাপল, কালসন্ধ্যা, হিম্মতি মা, দর্পণ, ঘাসিরাম কোতয়াল (নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়)।। রিজওয়ান (নাটবাঙলা)।। ক্রুসিবল, তুঘলক, হয়বদন, আরজ চরিতামৃত, বিচ্ছু (নাট্যকেন্দ্র)।। একা এক নারী, প্রতীক্ষার প্রহর, স্পার্টাকাস, ভদ্দরনোক (নাট্যচক্র)।। দ্বীপ, কঙ্কাল (নাট্যতীর্থ)।। দমের মাদার (নাট্যম রেপারেটরী)।। আমার আমি, লাল লণ্ঠন (নান্দীমুখ, চট্টগ্রাম)।। এক যে ছিল কুটনি বুড়ি (নুপুর কুষ্টিয়া)।। মেশিন (পদক্ষেপ, গাইবান্ধা)।। মা (পদাতিক নাট্য সংসদ)।। অরূপরতন (পরিসর আর্ট সেন্টার)।। মানগুলা, ডাকঘর, রিকোয়েস্ট কনসার্ট, উজানে মৃত্যু, বাংলার মাটি বাংলার জল (পালাকার)।। শ্যামাপ্রেম, আমি ও রবীন্দ্রনাথ, আওরঙ্গজেব, ঈর্ষা, হাছন জানের রাজা, কনডেমনড সেল, রক্তকরবী, লোকনায়ক (প্রাঙ্গণেমোর)।। রাজা এবং অন্যান্য..., এ ম্যান ফর অল সিজনস্, সার্কাস সার্কাস, গ-ার, বনমানুষ, কইন্যা, কিনু কাহারের থেটার, ট্র্যাজেডি পলাশবাড়ি, পুলসিরাত (প্রাচ্যনাট)।। ক্যালিগুলা, মেটামরফসিস (ফেইম স্কুল অব ডান্স, ড্রামা অ্যান্ড মিউজিক, চট্টগ্রাম)।। খনা, ক্রাচের কর্নেল (বটতলা)।। তিন পয়সার পালা (বহুবচন)।। মানুষ, চে’র সাইকেল, লেবেদেফ (বাঙলা থিয়েটার)।। রেডক্লিফ লাইন, ঊর্ণাজাল (বাতিঘর)।। কৈবর্তগাথা, মাতব্রিং, ব্রাত্য আমি মন্ত্রহীন (বিবর্তন যশোর, যশোর)।। শুরু করি ভূমির নামে (বোধন থিয়েটার, কুষ্টিয়া)।। কহে বীরাঙ্গনা, হ্যাপি ডেজ, ইঙাল আধার পালা, শ্রীকৃষ্ণকীর্তন, ও মনপাহিয়া (মণিপুরি থিয়েটার)।। শিখণ্ডী কথা, শ্রাবণ ট্র্যাজেডি, নিশিমন বিসর্জন, ঘুম নেই (মহাকাল নাট্যসম্প্রদায়)।। নদ্দিউ নতিম (ম্যাড থেটার)।। এন ইন্সপেক্টর’স কল (যাত্রিক প্রোডাকশন)।। তপস্বী ও তরঙ্গিনী, সোনাইমাধব, কঞ্জুস (লোকনাট্যদল)।। লীলাবতী আখ্যান (লোকনাট্যদল, সিদ্ধেশ্বরী)।। নীল ময়ূরের যৌবন, এ নিউ টেস্টামেন্ট অব রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট, ফনা, গুনাইবিবি, শিলাড়ী (শব্দাবলী, বরিশাল)।। পুত্র, টার্গেট প্লাটুন, গাজী কালু চম্পাবতী, শপথ, হ্যামলেট, ক্ষেতমজুর খইমুদ্দিন (শিল্পকলা একাডেমি রেপাটরি)।। একশ’ বস্তা চাল (যৌথ-প্রযোজনা- বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, জাপান দূতাবাস, জাপান ফাউন্ডেশন, জাপান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি)।। চিয়ারী (শিল্পকলা একাডেমি, কুষ্টিয়া)।। লাল জমিন (শূন্যন)।। বাথান (সমন্বয় থিয়েটার, চাটমোহর)।। ভাগের মানুষ, শেষ সংলাপ (সময়)।। গীতি চন্দ্রাবতী (সংস্কার নাট্যদল)।। কাল চৌতিশা (সাধনা)।। রাষ্ট্র বনাম, তীর্থঙ্কর, মহাজনের নাও, রূপবতী, খনা (সুবচন নাট্য সংসদ)।। অ্যাম্পিউটেশন, পীরচান, মেটামরফসিস, ব্র্যান্ড, দ্য মিশন, ভেলুয়া সুন্দরী, দ্য কমিউনিকেটর, রাজা, স্তালিন, মেকাব্রে (সেন্টার ফর এশিয়ান থিয়েটার)।। জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা (স্পর্ধা)।। ত্রিংশ শতাব্দী (স্বপ্নদল)।। তূঞ (হড় গায়েন দল)

মঞ্চনাটকের জয় হোক।

সাইফ সুমন ( This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it. ) : নির্দেশক-নাট্যকার-অভিনেতা। সহযোগী সম্পাদক-থিয়েটারওয়ালা